শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:৪৬ পূর্বাহ্ন

স্বামী হত্যার বিচার দাবিতে সন্তানদের নিয়ে সাংবাদিকের স্ত্রীর অবস্থান

রিপোটারের নাম / ১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১২ মার্চ, ২০২৪

বরগুনার সাংবাদিক তালুকদার মাসউদ হত্যার ঘটনায় মামলার এক সপ্তাহ পার হলেও কোনো আসামি গ্রেফতার না হওয়ায় ‘অবস্থান কর্মসূচি’ পালন করছে নিহতের পরিবার।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বরগুনা জেলা প্রশাসক কার্যালয় সামনে সন্তানদের নিয়ে ঘণ্টাব্যাপী নিহত সাংবাদিক তালুকদার মাসউদের স্ত্রী অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। এ সময় নিহতের পরিবার আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

তালুকদার মাসউদের স্ত্রী ও মামলার বাদী সাজেদা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দেশে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি থাকার পরেও আমার স্বামীর হত্যাকারীদের এখন পর্যন্ত পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

সাজেদা অভিযোগ করে বলেন, আসামিরা যেসব গণমাধ্যমে এখনো কর্মরত সেই গণমাধ্যমগুলোও অপরাধ ধামাচাপা দেওয়ার জন্য চেষ্টা করছে। তারা আমাদের এ ঘটনা নিয়ে কোনো খবর প্রকাশ তো করেইনি, উল্টো এখনো তাদের বহাল রেখে আমাদের ন্যায়বিচার পেতে অসহযোগিতা করছে।

বরগুনার জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, আপনি আমাদের জেলার অভিভাবক। আমি বিনয়ের সঙ্গে জানতে চাই, আমার স্বামীর হত্যাকারীরা কার ছত্রছায়ায় আছে। আমার সন্তানরা আমাকে প্রশ্ন করে, বাবার হত্যাকারীরা এখনো কিভাবে ফেসবুকে নানা উল্লাসের ছবি দেয়। আমাদের দেশে তো অনেক প্রযুক্তি রয়েছে। আমার বাবার হত্যাকারীরা ধরা পড়ছে না কেন।

পুলিশ সুপারকে উদ্দেশ করে নিহতের স্ত্রী বলেন, পুলিশ প্রশাসন কি এতই দুর্বল যে একজন আসামিকে তারা গ্রেফতার করতে পারেনি। যেদিন আমি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম, সেদিন আমার কাছে ২০ লাখ টাকা দিয়ে সমঝোতার জন্য তারা লোক পাঠিয়েছিল। এখনো প্রতিদিন প্রেস ক্লাবের লোকজন আমাকে টাকার বিনিময়ে সমঝোতার প্রস্তাব দেয়। সমঝোতায় না গেলে সমস্যায় ফেলে দেওয়ার হুমকি দেয়। আমি আমার সন্তানদের নিয়ে ভয়ে আছি। আপনি আসামিদের গ্রেফতার করে আমাদের সুরক্ষা দিন।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবদুল হালিম এসে তালুকদার মাসউদের স্ত্রী সন্তানদের খোঁজখবর নেন এবং আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে নিহত তালুকদার মাসউদের পরিবার অবস্থান কর্মসূচি শেষ করেন।

এরপর তালুকদার মাসউদের স্ত্রী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর বিচারের দাবিতে স্মারকলিপি পেশ করেন।

জেলা প্রশাসক মোহা. রফিকুল ইসলাম বলেন, সাংবাদিক মারা যাওয়ার ঘটনায় মামলার আসামিদের গ্রেফতার দাবিতে তার পরিবারের অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে দেখেছি। মামলার আসামিদের পুলিশ গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনবে।

বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আবদুল হালিম বলেন, সাংবাদিক মাসউদ তালুকদার হত্যা মামলার আসামিদের ধরতে আমরা অভিযান চালাচ্ছি। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে আমরা আসামিদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।

উল্লেখ্য, ১৯ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১টার দিকে বরগুনা প্রেস ক্লাবে তালুকদার মাসউদকে বেধড়ক মারধর করা হয়। সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার তার মৃত্যু হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ