শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:২৬ পূর্বাহ্ন

ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশন

রিপোটারের নাম / ২৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ শোক,গৌরব ও অহংকারে আমার বর্ণমালা এই স্লোগান নিয়ে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে ‘অমর একুশে ফেব্রুয়ারীর ভাষা শহীদদের স্মরণে উত্তরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সর্বস্তরের মানুষ নিয়ে গতকাল রাত ১২.১০মিনিটে বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে র‍্যালী নিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয় ।

এই বিষয়ে বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশন সভাপতি ও দৈনিক প্রথম বেলা’র সম্পাদক মোঃ শাহ আলম বলেন, আজ একুশে ফেব্রুয়ারি বাংলা মায়ের বীর সন্তানেরা তাঁদের মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে ১৯৫২ সালের এই দিনে রক্ত ঝড়িয়েছিলেন। আজ সেই মহান একুশে ফেব্রুয়ারি, মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের এই দিন থেকেই সৃষ্টি হয়েছিল পৃথিবীর ইতিহাসে মাতৃভাষার জন্য আত্মত্যাগের এক অভূতপূর্ব নজির। এমনকি বাঙালির মাতৃভাষার জন্য এই আত্মত্যাগের অনন্য ঘটনা স্বীকৃত হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে।

ফুলের শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় আরো উপস্থিত ছিলেন আসক এর নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ এনামুল হক নিপু ,বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উল আলম সবুজ, বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি চম্পা,শিপ্লি ও বঙ্গবন্ধু কালচারাল ফাউন্ডেশনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।


উল্লেখ, বাংলা মায়ের বীর সন্তানেরা তাঁদের মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে ১৯৫২ সালের এই দিনে রক্ত ঝড়িয়েছিলেন। আজ সেই মহান একুশে ফেব্রুয়ারী , মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের এই দিন থেকেই সৃষ্টি হয়েছিল পৃথিবীর ইতিহাসে মাতৃভাষার জন্য আত্মত্যাগের এক অভূতপূর্ব নজির।এমনকি বাঙালির মাতৃভাষার জন্য এই আত্মত্যাগের এই অনন্য ঘটনা স্বীকৃত হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও। ১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো একুশে ফেব্রুয়ারী কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দান করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ