শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১১:০৬ পূর্বাহ্ন

নতুন রাজনৈতিক দল ঘোষণা দিলেন শামা ওবায়েদের মা

রিপোটারের নাম / ১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪

দেশের নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির সাবেক মহাসচিব কেএম ওবায়দুর রহমানের স্ত্রী শাহেদা ওবায়েদ। তার দলের নাম হচ্ছে ‘ডেমোক্রেটিক রিফর্মস পার্টি’ (ডিআরপি) বা ‘গণতান্ত্রিক সংস্কার পার্টি’। শাহেদা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদের মা।

শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি। নতুন দলের আহ্বায়ক হিসেবে থাকছেন শাহেদা ওবায়েদ।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে দল গঠনের উদ্দেশ্য এবং ঘোষণাপত্র পাঠ করেন দলের মহা-সমন্বয়ক মেজর (অব.) আমীন আহমেদ আফসারী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রাজিয়া চৌধুরী, জহিরুল ইসলাম, আফাজুল হক, কমরেড সাব্বির, জাহাঙ্গীর আলম।

সংবাদ সম্মেলনে শাহেদা ওবায়েদ বলেন, আমরা একটি নতুন রাজনৈতিক দলের যাত্রা শুরু করেছি। আমাদের এটি প্রথম পদক্ষেপ। এই দলটির নাম হচ্ছে ‘ডেমোক্রেটিক রিফর্মস পার্টি’-ডিআরপি। বাংলায় হচ্ছে ‘গণতান্ত্রিক সংস্কার পার্টি’।

দল গঠনের উদ্দেশ্য তুলে ধরে শাহেদা ওবায়েদ বলেন, ‘৩০-৩৫ বছর ধরে আপনারা সবাই জানেন দেশে দলীয়করণ, তারপরে পরিবারকরণ, বর্তমানে আমিকরণ…এসব করণ থেকে আমরা দেশকে মুক্ত দেখতে চাই। আমরা যোগ্য মেধাবী, দক্ষ ও দেশপ্রেমিক মানুষের মূল্যায়ন চাই। আজকে সেই উদ্দেশেই আমাদের পা রাখা।’

সংবাদ সম্মেলনে নতুন দল গঠন করলেও নির্বাচন না করার কথা জানান তিনি। শাহেদা বলেন, আমি নির্বাচন করব না। কিন্তু তারপরও আমি চাই, একটা শুরু হোক। আমি মনে করি, ভালো একটা শুরু হলে, ভালো কিছু লোক নিয়ে শুরু করতে পারলে নিশ্চয়ই আমরা এগিয়ে যেতে পারব।

দলে কারা থাকছেন জানতে চাইলে শাহেদা ওবায়েদ বলেন, অতীতের বিতর্কিত কেউ থাকছে না। আমরা তাদের সঙ্গে কাজ করতেও চাই না। আমরা নতুনদের নিয়ে কাজ করতে চাই।

শাহেদা ওবায়েদ দীর্ঘদিন ‘গড়ব বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠনের আহ্বায়ক ছিলেন। ২০১৯ সালের দিকে এই সংগঠনের ব্যানারে তিনি বিএনপি এবং দলটির নেতৃত্বের কঠোর সমালোচনা করে আলোচনায় আসেন। ওই সময় তিনি বলেছিলেন, বিএনপি কোনো রাজনৈতিক দল নয়, এটি মা ও ছেলের রাজনৈতিক সমিতি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

শাহেদা ওবায়েদের স্বামী ওবায়দুর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর খন্দকার মোশতাক আহমেদের মন্ত্রিসভায় যোগ দিয়েছিলেন। ১৯৮৬ সালে বিএনপির মহাসচিব হলে পরে বহিষ্কৃতও হন। পরে ফের বিএনপিতে যোগ দিয়ে ১৯৯৬ সালে দলটির এমপি হন। ২০০১ সালে বিএনপি সরকারের সময়ে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান হন তার স্ত্রী শাহেদা ওবায়েদ। তিতুমীর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষও হন শাহেদা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ