শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০৪:২১ অপরাহ্ন

ছেলের বিরুদ্ধে বাবার সংবাদ সম্মেলন

রিপোটারের নাম / ১৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০২৪

পাবনার সাঁথিয়ায় জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদে ছেলের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করছেন এক ব্যক্তি।
ন্যায়বিচার চেয়ে শনিবার দুপুরে উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের সুন্দরকান্দি গ্রামে নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন ভুক্তভোগী মাওলানা আবু তাহের মিয়া (৮০)।

লিখিত বক্তব্যে তাহের মিয়া বলেন, আমার মোট জমি প্রথম ও দ্বিতীয় স্ত্রীর সন্তানদের মধ্যে অংশ হিসেবে রেজিস্ট্রি করে দিয়েছি। সে অনুযায়ী ছোট ছেলে ফয়সাল জমি দখল নিতে গেলে অপর ছেলে ফিরোজ ও ফরিদ বাধা দেয়।

এরপর ফিরোজ পাবনা শহরে বসবাসরত প্রথম পক্ষের ছেলে মাহবুবুল আলম ফারুককে মোবাইলে বিষয়টি জানায়। গতকাল শুক্রবার বিকালে ফারুক পাবনা থেকে সরকারি মনোগ্রামযুক্ত (স্ট্রিকার) পাজেরো জিপে (ঢাকা মেট্রো-ঘ ১১-১৬১৮) ৫/৭ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের সঙ্গে করে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে এসে হামলা চালায়। আমার দ্বিতীয় পক্ষের ছেলে শামসুল আলম ফয়সালকে (২৫) মেরে ফেলার জন্য খুঁজতে থাকে।

প্রাণ ভয়ে ফয়সাল পালিয়ে পাশের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। এ সময় আমি, আমার স্ত্রী ও পুত্রবধূর চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসে। এ সময় ফারুকসহ তার হেলমেট পরা সহযোগীরা এলাকাবাসীর ওপর হামলা করে। এলাকাবাসী তাদের প্রতিহত করতে গেলে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে এবং সন্ত্রাসীদের আটক করে থানায় খবর দেওয়া হয়।

পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে গাড়িসহ থানায় নিয়ে যায়। থানায় আমার ছেলে ফয়সাল বাদী হয়ে মামলা করতে গেলে পুলিশ তা নেয়নি। বরং উল্টো ফারুক বাদী হয়ে ফয়সালসহ সাতজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের নামে মিথ্যা মামলা করে। আমি এ মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে প্রশাসনের কাছে ন্যায়বিচার দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফয়সালের মা সালমা বেগম, স্ত্রী মনিরা আক্তার মৌ, ইন্তাজ আলী, ইয়াছিন আলী, ছাত্তার প্রামানিকসহ এলাকার শতাধিক নারী-পুরুষ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ