শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:২৮ অপরাহ্ন

চিকিৎসা অনুদানের চেক নিতে গিয়ে মারা গেলেন বৃদ্ধা

রিপোটারের নাম / ১৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০২৪

রাজশাহীর বাঘায় চিকিৎসা অনুদানের চেক নিতে গিয়ে রাজিয়া বেগম (৬১) নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

রাজিয়া বেগম উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের ধন্দহ গ্রামের মৃত জয়েন উদ্দিনের স্ত্রী।

জানা যায়, রাজিয়া বেগম দীর্ঘদিন থেকে প্যারালাইজড। তিনি ক্যান্সারেও ভুগছিলেন। চিকিৎসার টাকা জোগাড় করতে না পেরে সমাজ সেবা অফিসের সহযোগিতায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে আবেদন করেন তিনি। সেই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তার নামে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ৫০ হাজার টাকার চেক প্রেরণ করেন।

মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় উপজেলা পরিষদের হলরুমে চেক বিতরণের আয়োজন করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে রাজিয়া বেগম চেক নিতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

এ বিষয়ে রাজিয়া বেগমের ছোট ছেলে দিলদার আলী দুলু বলেন, আমরা অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের মানুষ। আবার বড় ভাই জিন্নাত আলী প্রতিবন্ধী। আমার মা আড়াই বছর ধরে প্যারালাইজড রোগে আক্রান্ত ছিলেন। এর মাঝে ক্যান্সারও ধরা পড়ে। চিকিৎসা সহায়তার টাকার জন্য উপজেলা সমাজসেবা দপ্তরের মাধ্যমে ইউএনওর কাছে আবেদন করা হয়েছিল। সেই সহায়তার টাকার চেক নেওয়ার জন্য উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে আসেন। মায়ের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি।

ধন্দহ গ্রামের আলম হোসেন বলেন, রাত সাড়ে ৯টায় রাজিয়ার জানাজা শেষে এলাকার গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার তরিকুল ইসলাম বলেন, অসুস্থ ১০ জন রোগীকে ৫০ হাজার করে টাকার চেক দেওয়ার তালিকায় রাজিয়া বেগম ছিলেন। রাজিয়া বেগম আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। তিনি চেক নিতে এসে আরও অসুস্থ হয়ে যান। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। তাকে ওই ৫০ হাজার টাকাসহ তার দাফনের সমস্ত ব্যয় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ