শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন

খসরু চৌধুরীর সহধর্মিনী যেন সহযোদ্ধা নীপা চৌধুরী

তরিক শিবলী / ১৯১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২৩

তরিক শিবলীঃ ঢাকা ১৮ আসনের এমপি পদপ্রার্থী খসরু চৌধুরী সহধর্মিনী নীপা চৌধুরী ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট চাচ্ছেন এবং তার স্বামীকে নির্বাচিত করলে কি ধরনের উন্নয়নমূলক কাজ হবে তা নিয়ে বিভিন্ন কথা বলছেন হাট থেকে ঘাটে ও ঘরে ঘরে সব জায়গায় তার পদচারণা। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে স্বামী খসরু চৌধুরীর জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন। ১৮ আসনের প্রতিটি ঘর যেয়ে তার ঘর। নারীদের সাথে কথা বলছেন বুঝাচ্ছেন সমাজ ও সমাজের উন্নয়নমূলক কথা। যেন স্বামীর সহযোদ্ধা তিনি ।

সিপাহী সালোয়ারদের মতো ছুটে চলছেন আঠারো আসনের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তর। নিপা চৌধুরী হয়তোবা শপথ করেছেন স্বামীর বিজয় পতাকা নিয়েই তিনি বাড়ি ফিরবেন ।তিনি ১৮ ডিসেম্বর থেকে প্রতিদিন দুপুর থেকে রাত পর্যন্ত স্বামী খসরু চৌধুরীর জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন। এ সময় ভোটাররা খসরু চৌধুরীকে কেটলি মার্কায় ভোট দিবেন বলে আশ্বাস দিচ্ছেন।তার সঙ্গে ঢাকা মহানগর উত্তর মহিলা আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত দেখাজায় ।

 

গণমাধ্যম কর্মীদের নীপা চৌধুরী বলেন, আমি ও আমার স্বামী ১৮ আসনে বসতি স্থাপন করেছি তাই আমি জানি এই এলাকার প্রত্যেকটা সমস্যা কথা। আমার স্বামী খসরু চৌধুরীর যদি এমপি হিসেবে নির্বাচিত হয় তবে সবগুলো সমস্যাই এলাকার প্রত্যেকটা মানুষকে সঙ্গে নিয়ে আমরা খুব সহজেই সমাধান করব ইনশাল্লাহ।খসরু চৌধুরী সকাল থেকে মাঝরাত অবধি মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি ঢাকা-১৮ আসনের সব মানুষকে নিজের পরিবারের সদস্য মনে করেন। আমার স্বামী এমপি নির্বাচিত হলে ঢাকা-১৮ আসনকে জলাবদ্ধতামুক্ত, পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন ও দুর্গন্ধমুক্ত বাসযোগ্য নগরীতে পরিণত করবেন বলে আমি বিশ্বাস করি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ