শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৪০ অপরাহ্ন

উর্দুভাষীদের জীবনমান উন্নয়নে বাজেটে বরাদ্দ দাবি

রিপোটারের নাম / ২৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

ঢাকাসহ দেশের ১১৬টি ক্যাম্পে বসবাসরত উর্দুভাষীদের জীবনমান উন্নয়ন, কল্যাণ ও পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় অন্তর্ভুক্ত করাসহ ৬ দফা দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ উর্দুভাষী অধিকার আন্দোলন নামের সংগঠন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এসব দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনের সহযোগিতায় ছিল মোহাজির রিহ্যাবিলিটেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট মুভমেন্ট (এমআরডিএম) জোন-এ ও জোন-বি জেনেভা ক্যাম্প মোহাম্মদপুর।

বাংলাদেশ উর্দুভাষী অধিকার আন্দোলনের আহবায়ক অসি আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ উর্দুভাষী অধিকার আন্দোলন সম্পূর্ণ একটি অরাজনৈতিক ও অ-মুনাফাভোগী প্রতিষ্ঠান। ২০০৮ সালে হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী বাংলাদেশে ১১৬টি ক্যাম্পে বসবাসরত উর্দুভাষী জনগোষ্ঠী বাংলাদেশের নাগরিক। উর্দুভাষী জনগোষ্ঠীর তরুণ প্রজন্ম এ দেশের আলো বাতাসের সাথে মিশে বড় হয়েছে। নিজেদের এ দেশের নাগরিক হিসেবে মনে করেন।

তিনি বলেন, উর্দুভাষী জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে ও আবাসন ব্যবস্থার সংকট সমাধানের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর পুনর্বাসনের ব্যবস্থার কথা বলেছেন।

তাদের ৬ দফা দাবি হলো- ২০২৪-২৫ সালের জাতীয় বাজেটে ঊর্দুভাষীদের মান-উন্নয়ন, কল্যাণ ও ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় ১১৬টি ক্যাম্পে বসবাসরত যে যেখানে আছে সেখানে নিরাপত্তাসহ পুনর্বাসন প্রক্রিয়া অর্ন্তভুক্ত করা; ১৯৯৫ সালে ততকালীন সরকার যেসব মোহাজীরদের বাসস্থান ক্যাম্পকে প্লট করে বরাদ্দ দিয়েছেন, সেই সব প্লট বরাদ্দর আদেশ বাতিল করে নতুন করে মোহাজীরদের বরাদ্দ দিতে হবে; পুনর্বাসনের ধরন হবে প্রতিটি পরিবারকে কমপক্ষে ৩ শতক জমি এবং ২ কক্ষবিশিষ্ট টিনশেডের বাড়ি নির্মাণ করে প্রতি পরিবারের নামে বরাদ্দ দিতে হবে; যে স্থানে উর্দুভাষী ক্যাম্প বাসীদের পুর্ণবাসন করা হবে যেসব স্থানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মাদ্রাসা, খেলার মাঠ এবং কমিউনিটি ক্লিনিকের মতো মানবিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে; পুনর্বাসন না হওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পসমূহের বিদ্যুৎ ও পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন না করার এবং অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্যে সংশ্লিষ্ট যথাযথ কর্তৃপক্ষকে আদেশ-নির্দেশ দিতে হবে; এবং আদমজী নগর ক্যাম্প, চট্টগ্রামের ঝাউতলা ক্যাম্প, মিরপুর সেকশন ১০, ১১ ও ১২, সৈয়দপুরের দুর্গাবিল ক্যাম্পসহ ঝুঁকিতে থাকা সব ক্যাম্পবাসীকে ভূমিদস্যুদের হাত থেকে পুর্নবাসন না হওয়া পর্যন্ত রক্ষা করার জন্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য আদেশ-নির্দেশ দিতে হবে।

এ সময় মানববন্ধনে বাংলাদেশ উর্দুভাষী অধিকার আন্দোলনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ