শিরোনাম
ঢাকা-১৮ আসনকে স্মার্ট আসন হিসেবে গড়তে কাজ করে যাচ্ছি: খসরু চৌধুরী এমপি ড.কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রম এলডিপির কার্যালয়ে জনগণের উদ্যেশে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণখানে রিকশাচালকদের মাঝে পানি বিতরণ করলেন খন্দকার সাজ্জাদ তীব্র তাপপ্রবাহে রিকশাচালকদের মাঝে পানি ও স্যালাইন বিতরণ ১০ দিনে তুরাগ থানার পরিবর্তনের ছোঁয়া কালীগঞ্জের নাগরিতে সন্ত্রাসীদের তান্ডব উত্তরায় প্রকৌশলীকে পিটিয়ে হত্যা, মূল হোতা নাজমুল ধরাছোঁয়ার বাইরে উত্তরায় বফেট লঞ্চের শুভ উদ্বোধন উত্তরা ৪৭ নং ওয়ার্ড এ খন্দকার সাজ্জাদ হোসেনের ঈদের নামাজ আদায় উত্তরখানে খসরু চৌধুরী এমপির ঈদ উপহার বিতরণ
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

ইতালি থেকে মায়ের মরদেহ দেখতে এসে লাশ হলেন ছেলে

রিপোটারের নাম / ১৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

ইতালি থেকে দেশে এসেও মায়ের মরদেহ দেখা হলো না প্রবাসী ছেলের। শেষবারের মতো মাকে দেখতে সুদূর ইতালি থেকে বাংলাদেশে আসেন শাহ আলম, কিন্তু বিধি বাম; এয়ারপোর্ট থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে সড়কে প্রাণ গেল তার।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুরে ট্রাক ও মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইতালি প্রবাসীসহ ২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১ জন।

এছাড়া নরসিংদীর মনোহরদীতে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় ১ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন।

শিবপুরে নিহতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া এলাকার শাজাহান মেম্বারের ইতালি প্রবাসী ছেলে শাহ আলম (৬২) ও একই এলাকার শামসু উদ্দিন মিয়ার ছেলে ও নিহতের ছোট বোনের স্বামী সেলিম মিয়া (৪৫)। এদিকে মনোহরদীতে বাসের চাপায় সোহাগ নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, মায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে দীর্ঘদিন পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া এলাকার ইতালি প্রবাসী ছেলে শাহ আলম (৬২) বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশে আসেন। ঢাকার শাহজালাল ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর থেকে তাকে আনতে ছোট বোনের স্বামী সেলিম ও ভাগ্নে সাব্বির সকালে একটি নোয়া মাইক্রোবাস নিয়ে এয়ারপোর্টে যান। সেখান থেকে শাহ আলমকে নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নরসিংদীর শিবপুরের পুকুরপাড় এলাকায় পৌঁছলে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে তাদের বহন করা মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ৩ জন গুরুতর আহত হন। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী ১শ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতালে নেওয়ার পথে সেলিমের মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইতালি প্রবাসী শাহ আলমের মৃত্যু হয়।

দুর্ঘটনাকবলিত মাইক্রোবাস থেকে বেঁচে যাওয়া নিহতের ভাগ্নে সাজেদুর রহমান সাব্বির বলেন, দুর্ঘটনায় আমার মামা ও খালু দুইজন মারা গেছেন।

তিনি বলেন, বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় আমার নানু ও ইতালি প্রবাসী শাহ আলমের মা মারা যায়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মায়ের জানাজা ছিল। এ খবর পেয়ে রাতের ফ্লাইটে তিনি বাংলাদেশে আসেন। বৃহস্পতিবার তাকে এয়ারপোর্ট থেকে আনতে ঢাকার শাহজালাল ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর যাই। সেখান থেকে তাকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতের ভাতিজা বায়জিদ বলেন, দাদিকে শেষ দেখা দেখতে দেশে এসেছিলেন চাচা; কিন্তু দাদিকে শেষবারের মতো আর দেখতে পারলেন না। অতৃপ্ত বাসনা নিয়ে চাচাকে পৃথিবী ছাড়তে হলো।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে জেলার মনোহরদী গরুর বাজার এলাকায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সোহাগ নামে এক মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়।

নরসিংদী ইটাখোলা হাইওয়ে ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক আরিফ বলেন, দুর্ঘটনার সময় বৃষ্টি হচ্ছিল। ধারণা করা হচ্ছে অতিরিক্ত গতির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ২ জন মারা যান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ